চুলের তেলতেলে ভাব দূর করুন এই সহজ নিয়মে

তৈলাক্ত চুল নিয়ে অনেকেই বিরক্ত। নতুন কোনো হেয়ার কাট দেওয়া যায় না, স্টাইলও করা যায় না। এসব সমস্যা সমাধানের উপায় জেনে নিন ঘরোয়া পদ্ধতিতে।

পাতিলেবু – দুটি লেবুর রস আর দুই কাপ বিশুদ্ধ জল একসঙ্গে মিশিয়ে রেখে দিন। প্রতিবার শ্যাম্পু করার পর চুল ভাল করে মুছে এই সলিউশন ভাল করে চুলের গোড়ায় লাগান। পাঁচ মিনিট রাখার পর জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

বেকিং সোডা – তেলতেলে চুলের পরিচর্যায় বেকিং সোডা অনন্য। তিন টেবিল চামচ বেকিং সোডা আর একটু জল দিয়ে পেস্ট বানান। আলতো করে চুলের গোড়ায় ওই পেস্ট লাগান, আর হাত দিয়ে হালকা ম্যাসাজ করুন। ১৫ মিনিট রাখার পর শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। সপ্তাহে তিনবার করতে পারলে, সব থেকে বেশি উপকার পাবেন।

শ্যাম্পু করার নিয়ম – ঠিকমতো শ্যাম্পু না করার কারণেও চুলের তৈলাক্তভাব থেকে যায়। শ্যাম্পু ছোট বাটিতে ঢেলে নিন। সঙ্গে পরিমাণমতো জল মিশিয়ে নিন। এরপর তেল দেওয়ার মতো করে চুলের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত লাগাতে হবে। ব্যস্ততা থাকলে জলমিশ্রিত শ্যাম্পু পেছনের চুল থেকে সামনের চুলে লাগান।

পুরো চুলে দুই মিনিট ম্যাসাজ করুন। এরপর ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন। যতক্ষণ পর্যন্ত চুল থেকে শ্যাম্পু না যায়। শ্যাম্পু করার পর চুল ঝরঝরে করতে কন্ডিশনার ব্যবহার করুন। চুলের আগা থেকে উপরের দিকে কন্ডিশনার লাগাবেন। এরপর পাঁচ মিনিট অপেক্ষা করে পরিষ্কার জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। চুল আলতো করে মুছে, শুকিয়্‌ মোটা দাড়ের চিরুনি দিয়ে আঁচড়ে নিন। কন্ডিশনার কখনো মাথার ত্বকে ব্যবহার করা উচিত নয়।

কারণ, এতে মাথার স্ক্যাল্প শুষ্ক হয়ে যায় এবং খুশকি হয়। তৈলাক্ত চুলে সপ্তাহে অন্তত দুদিন কন্ডিশনার ব্যবহার করতে হবে।

কিছু টিপস মেনে চলুন:

– সপ্তাহে অন্তত তিনবার শ্যাম্পু করুন, তৈলাক্ত চুলের উপযোগী ভাল শ্যাম্পু ব্যবহার করুন।

– বারবার চুল আঁচড়াবেন না। যতবার চুল আঁচড়াবেন ততবার কিন্তু সারা মাথায় তেল ছড়িয়ে যাবে।

– মাথায় তেল লাগালে কিছুক্ষণ পর অবশ্যই চুল ভাল করে শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

– চুল ধোয়ার পর শুকিয়ে সেট করুন। ভেজা চুল গামছা বা টাওয়েল দিয়ে জোরে জোরে ঝাড়বেন।

– চুল কাটার পর দুই মাসে একবার ট্রিম করে নিন।

– চুল বেশিক্ষণ টাইট করে বেঁধে রাখবেন না।